রাত জাগা পাখি ।। ফিলিপ জাকোতে ।। হিন্দি থেকে ভাষান্তরঃ অজিত দাশ


প্রতিটি ফুল 
প্রতিটি ফুল যেনো
একটা ছোট্ট রাত
ধীরে ধীরে নিকটে আসে

অথচ শূন্যে বিলীন হয়ে যায়,
যেখানে তার সুগন্ধ
আমি সেখানে যেতে পারি না
অস্থির হয়ে বসে থাকি দীর্ঘক্ষণ
এই বন্ধ দরজার সামনে

কত রঙ, কত জীবন
শুরু হয় দৃষ্টির প্রান্ত থেকে
এই সংসার যেনো এক শিখা
অদৃশ্য কোনো আগুনের।
••• •• •••


আমি মৃত্যুকে দেখেছি
হ্যাঁ, হ্যাঁ, এটা সত্য আমি মৃত্যূকে দেখেছি
শুধু মৃত্যুকে নয়, সময়কেও
নিজের চারপাশে, ভেতরে, ঝাপসা দৃষ্টির মাঝে
বেদনা শব্দে জড়িয়ে আছে
অথচ এমন কিছু বিদ্যমান, চাকুর আঘাতেও
যাকে দ্বিখন্ডিত করা যায় না
মিশে আছে, জলের মতো জাহাজের পিছু পিছু
••• •• •••


আমি হাঁটছি বাগানে
আমি হাঁটছি
একটা বাগানে

পাতার নীচে
পড়ে আছে
তাজা কিছু ছাই

আর আমার ঠোঁটে
জ্বলন্ত্য আঙ্গার।
••• •• •••


কবির সমাধি
বোকা হইও না
এই পঙক্তিগুলো আমি লিখিনি
লিখেছে একটা সারস পাখি অথবা
ঝুম বৃষ্টির ধারা
আর কিছু সারিবাঁধা এস্পিন বৃক্ষ

সামান্য প্রেমের সংকেতই ছিলো যথেষ্ট
তাদের জ্বালিয়ে দিতে
কারো ঘর নেই এইখানে–
না কেহ আছে, কাছে ও দূরে…
••• •• •••


আজ রাতে
আজ রাতে, ঠিক এই মুহূর্তে
আমি জানি যদি ঈশ্বর সমস্ত পৃথিবী
পুড়িয়ে ছাই করে দেয়,
সামান্য অঙ্গার থেকে যাবে
অজানায় আবারও হয়তো জ্বলে উঠবে

না আমি একথা ভাবছি, না আমি একথা বলছি
সেতো এই শীতের রাতের ভাবনা যা এখন গত হয়েছে।
••• •• •••


ঠান্ডা বাতাসে
আজ রাতে বরফের মতো
ঠান্ডা হাওয়া
চাবুক ছুটিয়ে চলছে
তারাদের গায়ে, আকাশে
অথচ আমি ভাবছি
আরও উজ্জ্বল হয়ে উঠবে তারা
এই রাতে।

হতে পারে অসম্ভব কিছু
অপেক্ষমান,

কিন্তু মেঘেরা বসে আছে
ঈশ্বেরর মতো স্ব মহিমায়
প্রদোষে বেগুনী রঙে
রাঙ্গা হবে।
••• •• •••


চুম্বন
জলের মধ্যে
দ্রত বেগে ছুটে চলছে সাপ
যেমন সামান্য দৃষ্টি
বিনিময়ে ছুটে চলে
একটা শান্ত চুম্বন।
••• •• •••


প্রলুব্ধ করা
দৃশ্যমান এবং অদৃশ্য
সকল জীব
নীরবতা ভেদ করে
কেবল একটি
শব্দ প্রলুব্ধ করে।
••• •• •••


রাত জাগা পাখি
রাত জাগা পাখি
আটকা পড়েছে
কালো স্টারের চরকায়

আমরা যারা এখনো
রয়ে গেছি, তাদের জন্য
সুতো ছোট হয়ে আসে।


সব আনন্দ দূর কোথাও
সব আনন্দ দূর কোথাও
সত্যি কত দূর– সে ভাবে
এমনকি নিজের শিশুকালে
দূর অতীতের এক গন্ধের কথা
মনে পড়ে– ঘামে ভেজা এক টাট্টূ ঘোড়া
যার দুপায়ের মাঝে কালো লম্বা লেজ
তাঁর মায়ের মুখের চেয়ে স্পষ্টতর

বাগানে ঝড়া শুকনো
পাতার মাঝে লাল রাস্তা

এখন সে কখনো
বাগানের রাস্তা ধরে
হাঁটতেও যায় না।
——————————————————————— 

ফিলিপ জাকোতে (১৯২৫-২০২১) একজন সুইস ফ্রাঙ্কোফোন কবি এবং অনুবাদক। এ পর্যন্ত ফরাসী ভাষায় সবচেয়ে বেশি পঠিত, অনূদিত এবং অধ্যয়ন করা কবিদের মধ্যে তিনি অন্যতম। তাকে ফরাসী ভাষার সবচেয়ে অনুসন্ধানী কবিদের একজন হিসেবেও বিবেচনা করা হয়। ফিলিপ জাকোতে ১৯২৫ সালে সুইজারল্যান্ডের ভাউডের ক্যান্টনে জন্মগ্রহণ করেন। ২০১৮ সাল পর্যন্ত কবিতা ও অনুবাদ মিলিয়ে জাকোতের প্রায় চল্লিশটিরও অধিক গ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে। ফরাসী ভাষায় তাঁর অনুবাদে গ্যাটে ছাড়াও, অনেক প্রখ্যাত কবি ও সাহিত্যিকদের রচনা পাওয়া যায়।
কবিতার জন্য ১৯৫৮ ও ১৯৬৬ সালে রাষ্ট্রীয়ভাবে ফরাসী সাহিত্য পুরস্কার অর্জন করেন। তাছাড়াও ১৯৮১ থেকে ১৯৯৫ পর্যন্ত আরও চারটি পুরস্কারে সম্মানিত হন। ২০০৩ সালে ফ্রান্সের বিখ্যাত ‘প্রিক্স গনকোর্ট’ সাহিত্য পুরস্কার এবং ২০১৮ সালে ইউরোপের সবচেয়ে ধনী আন্তর্জাতিক পুরস্কার ‘প্রিক্স মনদিয়েল সিনো দেল দুকা’ পুরস্কারে সম্মানিত হন।  ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে ৯৫ বছর বয়সে ফ্রান্সের গ্রিগনেনে  তাঁর মৃত্যু হয়। মূল ফরাসী থেকে হিন্দিতে অনূদিত হওয়ার কারণে উঠান পাঠকদের জন্য বাংলা ভাষায় কবিতাগুলো অনুবাদ করা হয়েছে।

Facebook Comments

comments

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

scroll to top