অনুভূতিগুচ্ছ ।। নৈঃশব্দ্য,সেই জন্মলগ্ন থেকে তুমি চুপ করে আছ! ।। আহমেদ সজীব


ছায়া কিছুতেই আমার পিছু ছাড়ছে না।
.
.
.

একটি স্বপ্ন আমাকে দেখছে বহুদিন ধরে।
.
.
.

এই পৃথিবীতে কি এমন কিছু আছে যার সাথে তোমাকে তুলনা করা যাবে?
.
.
.

নরকে রেখে-
ঈশ্বর,আমাকে স্বপ্ন দেখান স্বর্গের।
.
.
.

প্রকৃতপক্ষে প্রতিটি আলো একটি অস্থায়ী ধারনামাত্র।
.
.
.

পূন্যময় রাত্রিও আলোকিত হয় কলঙ্কিত চাঁদের আলোয়।
.
.
.

স্থির জলই জলপদ্মের প্রকৃত সৌন্দর্য।
.
.
.

আমার যতো অপূর্ণতা তোমাকে মন ভরে দেখতে না পাওয়ায়।
.
.
.

ওড়ার জন্য একটিমাত্র আকাশ যথেষ্ট নয়-একটি সুতো বিহীন ঘুড়ি আমায় জানিয়ে গেলো।
.
.
.
১০
মানুষ মরে গেলে ভূত হয়।আর ভূতেরা মরে গেলে কবি হয়।
.
.
.
১১
কংক্রিট,তুমি কখনো জানবে না-
তোমার থেকেও কঠিন মানুষের হৃদয়।
.
.
.
১২
বিয়েত্রিচ,তোমাকে দেখার জন্য আমার হৃৎপিণ্ড ব্যাকুল হয়ে আছে।
.
.
.
১৩
পূর্নিমা রাত;
ভাবছি চাঁদ আমাকে দেখছে
নাকি আমি চাঁদকে দেখছি।
.
.
.
১৪
হাসপাতালের অজস্র মৃত্যু প্রহরীত দরোজায়
আমি এসেছি রোগমুক্ত জীবনের আশায়!
.
.
.
১৫
গোলাপ,
আমার কণ্টকিত দুচোখে বিদ্ধ হলো তোমার শরীর।
.
.
.
১৬
কথারা যেখানে এসে থেমে যায়,
সেখান থেকেই শুরু হয় আমাদের কথোপকথন।
.
.
.
১৭
রোদের ডায়েরি লেখা হচ্ছে ধানক্ষেতে ;বোশেখ এলে আমরা কুড়িয়ে নেবো।
.
.
.
১৮
সমুদ্র,তুমিই ভাল জানো মানুষের দাঁত কত ধারালো আর জিহবা কত পিচ্ছিল!
.
.
.
১৯
তুমি আর আমি-আমরা অমর,কেননা আমাদের অস্তিত্ব লেখা হয়ে গেছে গণিতের ধারায়।যথা:
০+০=০
০-০=০
০×০=০
০÷০=০
.
.
.
২০
আমাদের কাস্তে ও লাঙলগুলো ফিরিয়ে দিন-গরুগুলো বেশ অবাধ্য হয়ে উঠছে।
.
.
.
২১
হাওয়া,এবার তুমি উদোম হও,এবার তোমার শরীর দেখাও।
.
.
.
২২
পৃথিবী’র কোথাও তোমাকে না পেয়ে ক্লান্ত আমি চেয়ে দেখি তুমি লুকিয়ে আছ আমারই এই আত্মায়।
.
.
.
২৩
আমরা স্থলচর নই,জলচরও নই। আমরা আমৃত্যু খেচর।
.
.
.
২৪
নৈঃশব্দ্য,সেই জন্মলগ্ন থেকে তুমি চুপ করে আছ!
.
.
.
২৫
শরীরের ক্লান্তিতে বুঝতে পারছি গতকাল রাতে স্বপ্নে আমরা পাশাপাশি হেঁটে অনেকদূর চলে গিয়েছিলাম।
.
.
.
২৬
একাকিত্বকে ছাড়া নিজেকে খুবই নিঃসঙ্গ মনে হয়।
.
.
.
২৭
পৃথিবীর আকাশের চেয়ে মানুষের মনের আকাশ অনেক বড়।

Facebook Comments

comments

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

scroll to top